বাংলাদেশ একদলীয় স্বৈরশাসকের দেশে পরিণত হয়েছে : ড. এমাজউদ্দিন

emajuddin_ex-vc
ড. ইমাজউদ্দিন (ফাইল ছবি)

ছবি: এমাজউদ্দিন আহমেদবাংলাদেশ এখন একদলীয় স্বৈরশাসকের দেশে পরিণত হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি ও রাষ্ট্রবিজ্ঞানের অধ্যাপক ড. এমাজউদ্দিন আহমেদ।

সোমবার জাতীয় প্রেসক্লাবে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী মহিলা দল আয়োজিত একদলীয়, অবৈধ এবং প্রহসনমূলক নির্বাচন বাতিল ও নেতাকর্মীদের মুক্তির দাবিতে প্রতিবাদ সভায় তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের শাসন আর গণতন্ত্র কখনোই এক সঙ্গে চলতে পারে না। অতীতেও পারেনি, ভবিষ্যতেও পারবে না।

বর্তমান সরকারের শাসনকে নাৎসী শাসনের সঙ্গে তুলনা করে তিনি বলেন, এ সরকার গণতন্ত্রকে গলা টিপে হত্যা করেছে। তারা এক দলীয় তামাশার মন্ত্রিসভা গঠন করেছে।

তিনি আরও বলেন, গণতন্ত্র রক্ষার জন্য মহিলাদেরও এগিয়ে আসতে হবে। স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় যেভাবে ভেদাভেদ ভুলে স্বাধীনতা অর্জনের জন্য ঝাঁপিয়ে পড়েছিল ঠিক তেমনি আপনাদেরও গণতন্ত্র রক্ষার জন্য ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে।

এমাজউদ্দিন আরও বলেন, গণতন্ত্রের গৌরব আমাদেরই ফিরিয়ে আনতে হবে। আর সে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে সর্বোচ্চ ত্যাগ স্বীকার করতে হবে।

বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের (বিএফইউজে) সভাপতি রুহুল আমিন গাজী বলেন- এ সরকার সাগর-রুনী হত্যা, কুইকরেন্টাল, ডেসটিনি, হলমার্ক, পদ্মা সেতু দুর্নীতি, শেয়ারবাজার কেলেঙ্কারীসহ নানা ধরনের কেলেঙ্কারী উপহার দিয়েছে সরকার।

তিনি বলেন, সরকারের বিদ্রোহী প্রার্থীরা ভোটে জিততে না পেরে সংখ্যালঘুদের ওপর হামলা চালিয়ে ১৮ দলের ঘাড়ে চাপিয়ে দিয়ে প্রহসনের নির্বাচনের মোটিভ ঘুরানোর চেষ্টা করছে। দেশের মানুষ বোকা না, তারা তাদের এ ষড়যন্ত্র ধরে ফেলেছে।

প্রতিবাদ সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন-বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদিকা শিরিন সুলতানা, নূরে আরা সাফা, রাবেয়া সিরাজ প্রমুখ।

এসএস/জেইউ/কেএফ