মারা গেলেন বুলডোজার

Former_Israeli_Prime_Minister_Ariel_Sharonআট বছর কোমায় থাকার পর অবশেষে মারা গেলেন ইহুদীবাদী রাষ্ট্র ইসরাইলের সাবেক প্রেসিডেন্ট অ্যারিয়েল শ্যারন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮৫ বছর। একরোখা,জেঁদী ও গোঁয়ার হওয়ার কারণে তাকে দ্য বুলডোজার নামে ডাকা হত। গণহত্যার কারণে বৈরুতের কসাই নামেও তিনি পরিচিতি লাভ করেন। ইসরায়েলের সামরিক বেতারের বরাত দিয়ে আল-জাজিরার এক প্রতিবেদনে এই খবর জানানো হয়েছে।

শ্যারন ইসরায়েলের সবচেয়ে কুখ্যাত চরিত্রগুলোর একটি। দেশটির সামরিক বাহিনীর জেনারেল হিসেবে অবসর নেয়ার পর তিনি লিকুদ পার্টিতে যোগদান করেন। ১৯৮২ সালে ইসরায়েলের প্রতিরক্ষা মন্ত্রীর দায়িত্ব পালনকালে বৈরুতে ফিলিস্তিনি শরণার্থীদের বিরুদ্ধে গণহত্যা চালানোর অভিযোগে তাকে পদত্যাগ করতে হয়। এই গণহত্যায় প্রায় ৩ হাজার ৫ শত ফিলিস্তিনি নিহত হন। এরপর থেকে তাকে বৈরুতের কসাই নামে ডাকা শুরু হয়।

২০০১ সালে তিনি ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হন। তার শাসন আমলে সহিংসতায় প্রায় সাড়ে ৩ হাজারেরও বেশি ফিলিস্তিনি এবং ১ হাজার  ইসরায়েলি নিহত হয়।

তবে ২০০৫ সালে গাজা উপত্যকা থেকে ইসরায়েলি সেনা ও বসতি প্রত্যাহার করে বিশ্বব্যাপী প্রশংসিত হয়েছিলেন। ২০০৬ সালে নব্যগঠিত কাদিমা পার্টির হয়ে নির্বাচনে অংশ নেয়ার পূর্বে তিনি স্ট্রোকে আক্রান্ত হয়ে কোমায় চলে যান।