শ্রমিকদের সঙ্গে কেইপিজেড মালিকপক্ষের সমঝোতা

KEPZ
কেইটিজেড় লোগো

KEPZচট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলায় অবস্থিত রপ্তানি পক্রিয়াজাত প্রতিষ্ঠান কোরিয়ান ইপিজেড কেইপিজেডে শ্রমিক বিক্ষোভের পর মালিকপক্ষের সঙ্গে সমঝোতা হয়েছে। শ্রমিক-পুলিশ সংঘর্ষে নিহত পারভিন আক্তারকে ছয় লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ ও আহত শ্রমিকদের চিকিৎসার খরচ বহন করবে বলে জানিয়েছেন মালিকপক্ষ। সেই সঙ্গে মালিকপক্ষ শ্রমিকদের সকল দাবিও মেনে নেবে বলে জানিয়েছেন কর্ণফূলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. মহিউদ্দিন।

মহিউদ্দিন আরও জানান, গেল বৃহস্পতিবার কোরিয়ান ইপিজেডে ভাংচুর-সংঘর্ষের পর মালিকপক্ষের সঙ্গে শ্রমিকদের একটি প্রতিনিধি দল বৈঠক করেন। বৈঠক থেকে সমঝোতার  সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় বলে জানিয়েছেন তিনি।

উল্লেখ্য, এর আগে গত বৃহস্পতিবার দুপুরের দিকে কেইপিজেডের কর্ণফূলী স্পোর্টস ওয়্যার লিমিটেড (কেএসএল) নামে ই্য়ং ওয়ান গ্রুপের কারখানায় নতুন বেতন কাঠামোতে বেতন-ভাতা বৈষম্যের প্রতিবাদে কেইপিজেড এলাকায় পোশাক শ্রমিকেরা বিক্ষোভ শুরু  করলে পুলিশের সাথে তাদের সংঘর্ষ বাধে। একপর্যায়ে শ্রমিকেরা পুলিশের দুটি  গাড়িসহ চারটি গাড়ি ভাঙচুর করে ও ঝুট কাপড়ের একটি গুদামে আগুন ধরিয়ে দেয়। পরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে গুলি ছোড়ে পুলিশ। এতে পারভীন আক্তার নামে এক শ্রমিক গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যায়। এ সময় সংঘর্ষে পুলিশসহ অন্তত ২৫ জন আহত হয় ।