অর্থ আত্মসাৎ : পল্লী বিদ্যুতের ৫ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে দুদকের চার্জশিট দাখিল

দুদকগ্রাহকের কাছ থেকে আদায় করা সাড়ে ১২ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ সাভার এলাকার ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার ইমরুল হাসানসহ পাঁচ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে একটি মামলার চার্জশিট দাখিলের অনুমোদন দিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। দু’একদিনের মধ্যেই জয়দেবপুর থানায় মামলাটির চার্জশিট দাখিল করা হবে বলে।

বৃহস্পতিবার কমিশনের নিয়মিত বৈঠকে এ মামলায় চার্জশিট দাখিলের  অনুমোদন দেওয়া হয় বলে নিশ্চিত করেন দুদকের  উপ-পরিচালক ও জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রণব কুমার ভট্টাচার্য।

অভিযোগের প্রমাণ সাপেক্ষ্যে যাদের বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিলের অনুমোদন দেয়া হয়েছে- ঢাকা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ সাভার এলাকার  ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার মো. ইমরুল হাসান, গাজীপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির সাবেক ক্যাশিয়ার শাহানা পারভীন, বিলিং সুপারভাইজার মিসেস শিরিন বেগম, সহকারী প্লান হিসাব রক্ষক  শংকর চন্দ্র পাইক ও মো. মনিয়ার হোসেন।

দুদক সূত্র জানায়, আসামিরা পরস্পর যোগসাজশে ২৫ সেপ্টেম্বর  ২০০৫ সাল থেকে ২০০৬ সালের ২৪ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত পল্লী বিদ্যুত সমিতির বিভিন্ন গ্রাহকের নিকট থেকে আদায়কৃত বিদ্যুৎ বিল জমা না দিয়ে বিভিন্ন সময়ে মোট ১২ লাখ ৫২ হাজার ৯৮৪ টাকা আত্মসাৎ করে। অভিযোগটি আমালে নিয়ে ২০১২ সালে ১১ সেপ্টেম্বর গাজীপুরে জয়দেবপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছিল দুদক। পরবর্তীতে এ মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও সহকারী পরিচালক মো. আমিরুল ইসলাম প্রায় দেড় বছর তদন্ত শেষে কমিশনে তদন্ত রিপোর্ট পেশ করেন।

যাচাই-বাছাই শেষে কমিশন দণ্ডবিধির ৪০৯/১০৯ ধারা এবং ১৯৪৭ সনের ২নং দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫ (২) ধারায় এ চার্জশিট দাখিলের অনুমোদন দেয়।

 

এইউ নয়ন