ভৈরবে গড়ে উঠেছে শতাধিক যন্ত্রাংশ তৈরির কারখানা

Jontro-Karkhanaভৈরবে গড়ে ওঠেছে কৃষি ও নৌযান কাজে ব্যবহৃত যন্ত্র ও যন্ত্রাংশ তৈরির একশ’রও বেশি কারখানা। সারাদেশে এসব যন্ত্র ও যন্ত্রাংশের ব্যাপক চাহিদা থাকায় এবং লাভজনক হওয়ায় এ খাতে বিনিয়োগ করছেন নতুন নতুন উদ্যোক্তারা।

এসব উদ্যোক্তাদের দাবি, সরকারি পৃষ্ঠপোষকতা পেলে এ শিল্পে ব্যাপক কর্মসংস্থানসহ দেশিয় চাহিদা মিটিয়ে বিদেশে রপ্তানি করে প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করা সম্ভব।

সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, ভৈরবের এ সকল কারখানায় পাওয়ারটিলার, মাড়াইকল, পারাকল, মিনিকল, অটো রাইছমিলের বিভিন্ন যন্ত্রাংশ, লাছা ও লাকড়ি মিলের মেশিন ও খুচরা যন্ত্রাংশ, লঞ্চ, কার্গো, ট্রলারের পাখা, বুশ, শাফট, ড্রেজিংপাম্পসহ এসবের যন্ত্রাংশ তৈরি হচ্ছে নিপুনভাবে। এছাড়া লাইজার, জালি, ফিস্টন, কোদাল, নোঙর, টিউবওয়েল ইত্যাদি কৃষি ও নৌযানের মেশিনারিজ এবং মেশিনারিজের খুচরা যন্ত্রাংশ তৈরি হচ্ছে।

গ্রিণ মেটালের পরিচালক সুজিদ দাস, সুমাইয়া ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের মোঃ ওসমান গণি এবং রূপালী কারিগরি কারখানার শাহিন মিয়া জানান, আজ থেকে ১০ বছর আগেও ভৈরবে হাতেগোনা কয়েকটা কারখানা ছিল। প্রচুর চাহিদা আর লাভজনক হওয়ায় দিনে দিনে এ খাতে বিনিয়োগ বাড়ছে। এ শিল্পের উদ্যোক্তারা সহজ ও দীর্ঘমেয়াদী ঋণ সুবিধা পেলে ব্যাপক উন্নয়ন ঘটবে এ খাতে।

তারা আরও বলেন, এর ফলে এ খাতে প্রচুর কর্মসংস্থানের সৃষ্টি হবে। দেশিয় চাহিদা মিটিয়ে ভারতসহ প্রতিবেশী দেশে রপ্তানি করে বৈদেশিক মুদ্রাও অর্জন করা যাবে।

অন্যদিকে ভৈরবের মেশিনারিজ যন্ত্রপাতি বিক্রেতা শান্ত মেশিনারিজ স্টোরের প্রোঃ মনির উদ্দিন খান, রূপালি মেশিনারিজ স্টোরের গোলাম মোস্তফা, মা ইঞ্জিনিয়ারিং স্টোরের বিল্লাল সরকার জানান, এ সকল যন্ত্র ও যন্ত্রাংশ তৈরির কারখানা ভৈরবে গড়ে ওঠার আগে তারা ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জ থেকে কিনে এনে বিক্রি করতেন। ফলে ক্রয় খরচ বেশি হত এবং নানা হয়রানির শিকার হতে হতো তাদের। বর্তমানে স্থানীয়ভাবে এসব উৎপাদিত হওয়ায় ক্রয়মূল্য কম হচ্ছে এবং সুলভ মূল্যে তারা সেগুলো বিক্রি করতে পারছেন। ভৈরবে তৈরি এসব দ্রব্যাদি অত্যন্ত মানসম্মত বলেও তারা জানান।

তবে সরকারের প্রতি তাদের দাবি, এ সকল কারখানার জন্য স্থানীয়ভাবে একটি বিশেষ শিল্পজোন গড়ে তুললে প্রস্তুতকারক এবং ক্রেতা-বিক্রেতা সবার জন্য বিশেষ সুবিধা হতো। এ  বিষয়টি সুবিবেচনায় জন্য তারা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন

কেএফ