ফরিদপুরে ১৬ ঘণ্টার ব্যবধানে দুই ছাত্রের গলাকাটা লাশ উদ্ধার

khunফরিদপুরে ১৬ ঘণ্টার ব্যবধানে দুই ছাত্রের গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বুধবার সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে ফরিদপুর শহরের আলীপুর এলাকায় রামেন্দ্র প্রতাপ দাস (১৮) নামে এক কলেজ ছাত্রের গলাকাটা লাশ উদ্ধার করা হয়।

নিহত রামেন্দ্র প্রতাপ দাস ফরিদপুর সিটি কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির বাণিজ্য বিভাগের ছাত্র ছিল। সে রাজবাড়ী জেলার সুলতানপুর ইউনিয়নের শ্যামনগর গ্রামের রবীন্দ্রনাথ দাসের ছেলে।

পৌরসভার সীমানা প্রাচীর সংলগ্ন একটি দোকানের নিচ থেকে রামেন্দ্র্র প্রতাপের লাশটি উদ্ধার করে পুলিশ। লাশ ময়না তদন্তের জন্য ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ।

ফরিদপুর কোতয়ালী থানার ওসি সৈয়দ মোহসিনুল হক জানান, ওই এলাকার বস্তির এক মহিলা সকাল ১০টার দিকে গাছের ডাল সংগ্রহ করতে গিয়ে লাশটি পড়ে থাকতে দেখে। পরে খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়। তিনি বলেন, দুর্বৃত্তরা ওই কলেজ ছাত্রকে গলা কেটে হত্যার পর তাঁর দুটি চোখ ও মুখমণ্ডলের পুরো চামড়া ধারালো অস্ত্র দিয়ে তুলে ফেলেছে। লাশের পাশে পড়ে থাকা কলেজের বেতন পরিশোধের রশিদ পাওয়া যায়। ওই রশিদ থেকে ছাত্রের পরিচয় জানা যায়। তিনি আরও বলেন, কলেজ কর্তৃপক্ষের সহযোগিতায় তাঁর পরিবারের কাছে সংবাদ পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় হত্যা মামলা দায়ের করা হবে।

অপরদিকে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ফরিদপুর সদর উপজেলার ঈশান গোপালপুর ইউনিয়নের কাঠালতলা নামক স্থান থেকে অপহরণের তিনদিন পর ইমন নামের অপর এক ছাত্রের লাশ উদ্ধার করা হয়। ইমন মিয়া (১৬) মাধবদিয়া ময়েজউদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্র ও গোপালপুর ইউনিয়নের মজম মাতুব্বরের ডাঙ্গী গ্রামের শামসুল ইসলাম ওরফে সোনা মিয়ার ছেলে। অপহরণকারীরা মুক্তিপণ হিসেবে তার পরিবারের নিকট ৫ লক্ষ টাকা দাবি করে। ইমনের পরিবার টাকা দিতে ব্যর্থ হলে অপহরণকারীরা তাকে হত্যা করে বলে জানা গেছে।

ইআর/