সংখ্যালঘু হামলা একাত্তরের চেয়েও বর্বর: ইকবাল সোবহান

iqbal soban
প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী

iqbal sobanদেশের সাধারণ মানুষের জীবনে এখন এক ধরণের কালো ছায়া নেমে এসেছে। দিনাজপুর, ঠাকুরগাঁ, যশোরের অভয়নগরে হিন্দু অধ্যুসিত এলাকায় যে হামলা হয়েছে তা একাত্তরের পাকিস্তানের হামলাকেও হার মানিয়েছে বলে জানালেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী।

বুধবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের উদ্যোগে আয়োজিত এক সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন।

বিরোধীদল নির্বাচনকে প্রতিহত করতে না পেরে সংখ্যালঘুদের উপর অন্যায়ভাবে অত্যাচার-নির্যাতন চালাচ্ছে অভিযোগ করে ইকবাল সোবহান বলেন, আমাদের নবী হযরত মোহাম্মদ (সা:) বলেছেন সংখ্যালঘুদের সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করা সংখ্যাগুরুদের দায়িত্ব।

তিনি বলেন, ৭১ সালে পাকিস্তানের বর্বরবাহিনীকে বাঙ্গালী জাতি যেভাবে মোকাবেলা করেছে ২০১৪ সালেও আবার সময় এসেছে তাদের উত্তরসুরী বিএনপি-জামায়াত চক্রকে মোকাবেলা করার। তাই দেশবাসীকে এ বিষয়ে সোচ্ছার হতে হবে।

এ সময় স্বাধীনতার বিরোধী শক্তিতে রুখে দাঁড়াতে জাতিকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতা রোধ করা নির্বাচন কমিশনের দায়িত কিন্তু তিনি তা করছেন না কেন এমন প্রশ্ন রেখে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল বলেন, নির্বাচনী কাজে আপনার ৫ লাখেরও বেশি আইন-শৃংখলা বাহিনী নিয়োজিত থাকা সত্বেও দেশে সংখ্যালঘুদের উপর  নির্যাতন হচ্ছে কেন ? এসব সহিংস ঘটনার দায়ভার আপনাকেই নিতে হবে। এ সময় তিনি বলেন, হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান এরা সংখ্যালঘু নয় বরং স্বাধীনতা বিরোধীরাই সংখ্যালঘু।

শেখ হাসিনকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, আমরা বিশ্বাস করি মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের শক্তি দ্রুত সরকার গঠন করে মুক্তিযুদ্ধ বিরোধী এসব অপশক্তির বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

এ সময় সংখ্যালঘুদের আশ্বস্ত করে তিনি বলেন, আপনাদের কোনো ভয় নাই। সাংবাদিক, বুদ্ধিজীবী ও শিল্পী সমাজ সবাই আপনাদের পাশে আছে। তিনি আর ও বলেন, যারা স্বাধীনতার বিরোধী শক্তি তারাই হিন্দু সংখ্যালঘুদের উপর হামলা চালাচ্ছ বলেও তিনি স্পষ্ট করেন।

সংগঠনের সভাপতি মঞ্জুরুল আহসান বুলবুলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বিএফইউজে মহাসচিব আব্দুল জলিল ভূঁইয়া, সাবেক মহাসচিব আলতাফ মাহমুদ, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি ওমর ফারুক, মোল্লা জালাল, সাইফুল ইসলাম তালুকদার প্রমুখ।

জেইউ/এসএস