শনিবার, অক্টোবর ৩১, ২০২০
Home টুকিটাকি রইকির মৃতদেহ যাবে কোথায়!

রইকির মৃতদেহ যাবে কোথায়!

রইকির মৃতদেহ যাবে কোথায়!

raikiগত ২০ ডিসেম্বর সৌদির তাবুকে একটি পরিত্যক্ত কুয়ায় পড়ে নিহত হয় ছয় বছর বয়সী লামা আল রইকি। আঠারো দিন অনুসন্ধানের পর তার মৃতদের একটি অংশ উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছেন সৌদির বেসামরিক নিরাপত্তাবাহিনীর কর্মকর্তারা।

মঙ্গলবার আরব নিউজের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

তাবুকে উদ্ধার কাজে নিয়োজিত বেসামরিক কর্মকর্তাদের পক্ষ থেকে কর্নেল মামদুহ আল আনাজি জানিয়েছেন, কর্মকর্তারা লামার দেহাবশেষের একটি অংশ খুঁজে পেয়েছেন। তবে তার পুরো মৃত দেহ পাওয়ার জন্য অনুসন্ধান কাজ এখনও অব্যাহত রয়েছে।

উদ্ধারকাজের ব্যাপারে কর্মকর্তাদের সমালোচনা করে লামার বাবা অভিযোগ করে বলেন, তারা উদ্ধারকাজে উন্নত প্রযুক্তি আনতে ব্যর্থ হয়েছে। এদিকে দেহের বাকি অংশ উদ্ধার করতে সৌদির আরামকো নামে একটি নামকরা প্রতিষ্ঠান বড় অংকের টাকা পুরস্কার ঘোষণা করেছে বলেও জানান তিনি।

বেসামরিক নিরাপত্তাবাহিনীর পরিচালক মেজর জেনারেল মাস্তুর আল হারিতি জানান, লামার পিতা অভিযোগ দায়ের করার সাথে সাথেই ওই স্থানে উদ্ধারকাজের জন্য নিরাপত্তাবাহিনীর ২১৬ জন কর্মকর্তাকে পাঠানো হয়েছে। আরামকো এবং উদ্ধারকাজে অন্যদের সাথে তারা সহায়তা করবে বলে জানান তিনি।

হারিতি লামার বাবার অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করে বলেন, এক বছর আগে সৌদির স্থানীয় কৃষকরা এখান থেকে তাদের কৃষিজমিতে পানি দেওয়ার পর বর্তমান পর্যন্ত তা পরিত্যক্ত অবস্থায় আছে। ফলে উদ্ধার কাজ অনেক কঠিন হয়ে দাঁড়িয়েছে।

একজন বিশেষজ্ঞ জানান, এই কুপটিকে লামার কবর হিসেবে চিহ্নিত করা যেতে পারে। কিন্তু তার মা এতে অসম্মতি জানিয়ে মেয়েকে যথাযথ স্থানে কবর দেওয়ার কথা বলেন।

প্রসঙ্গত, লামার মৃত্যুর ঘটনায় সৌদিতে অনুসন্ধান চালিয়ে মোট ১৩ হাজার  পরিত্যক্ত কুয়ো খুঁজে পেয়েছেন দেশটির পানি ও বিদ্যুৎ মন্ত্রণালয়। পরিবেশ ও নিরাপত্তা আইন ভঙ্গ করার জন্য কিছু লোককে জরিমানাও করা হয়েছে বলে জানায় মন্ত্রণালয়টি।

এসআর/এআর