ভোটের শতাংশ জানাতে পারছে না সিইসি

CEC

CECগতকাল শেষ হয়েছে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোট গ্রহণ। নির্বাচনে ১৪৭টি আসনের মধ্যে ১৩৯টি আসনের ফলাফল বেসরকারিভাবে ঘোষণা করা হয়েছে। শুধু ৮টি আসনে ভোট গ্রহণ বাকী রয়েছে। কিন্তু কত শতাংশ ভোট গ্রহণ হয়েছে তা জানাতে পারে নি নির্বাচন কমিশন।

গতকাল থেকেই গণমাধ্যমের কর্মীরা প্রধান নির্বাচন কমিশনারকে প্রশ্ন করে আসছিলেন ভোটের শতাংশ কত? কিন্তু নির্বাচন কমিশনার প্রশ্নটি বারবার এড়িয়ে গিয়েছেন। বলেছিলেন, ভোট গ্রহণ শেষ হলে আপনাদেরকে তা জানানো হবে।

তবে, গতকাল রাত ২টা ৩০ মিনিটে দেওয়া সংবাদ সম্মেলনেও বিষয়টি তিনি এড়িয়ে গেছেন। তাই সাংবাদিকরা ভেবেছিল সিইসি আজ ভোটের  শতাংশ সম্পর্কে গণমাধ্যমকে জানাবে। কিন্তু আজও এ বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে নির্বাচন কমিশনার কাজী রকীবউদ্দীন আহমদ বলেন, কত শতাংশ ভোট পড়েছে তা জানতে আরও দু’একদিন সময় লাগবে। সোমবার সন্ধ্যায় নির্বাচন কমিশনার কাজী রকীবউদ্দীন আহমদ সচিবালয় থেকে বের হওয়ার সময় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

এ সময় নির্বাচন কমিশনার বলেন, আন-অফিসিয়াল রেজাল্ট ইতোমধ্যে প্রকাশ করা হয়েছে। তা আপনারা পেয়ে গেছেন। এখন অনেকগুলো কেন্দ্র থেকে রেজাল্ট আসে নাই। সেই কেন্দ্রগুলোর রেজাল্টের হার্ড কপি না আসলে আমরা সেটা প্রকাশ করতে পারছি না।

তিনি আরও বলেন, অনেকগুলো পোলিং সেন্টার পুড়ে যাওয়ার কারণে সেখানে আবার কেন্দ্র তৈরি করতে হবে। নির্বাচনের গেজেট নোটিফিকেশন করতে হবে। শিগগিরই আমরা এটা করে ফেলব।

এর আগে সোমবার দুপুর থেকে সন্ধা ৬টা পর্যন্ত কমিশনাররা দীর্ঘ বৈঠক করেন। পরে দুইজন নির্বাচন কমিশনার নিশ্চিত করেন, আগামি ১৬ই জানুয়ারি স্থগিত করা কেন্দ্রগুলোর নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

উল্লেখ্য, ৮টি সংসদীয় আসনে পুনরায় ভোট গ্রহণের ব্যাবস্থা করতে হবে নির্বাচন কমিশনকে। ৫ জানুয়ারির জাতীয় সংসদ  নির্বাচনে ১৪৭টি আসনের মধ্যে ১৩৯টি আসনের ফলাফল বেসরকারিভাবে ঘোষণা করা হয়েছে। তবে ৮টি আসনের ফলাফল দিতে পারে নি কমিশন। এরই মধ্যে নির্বাচন কমিশনার ঘোষণা দিয়েছেন ১৬ তারিখ স্থগিত হওয়া কেন্দ্রগুলোর নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ভোট স্থগিত হয়ে যাওয়া আসনগুলো হলো- দিনাজপুর-৪, কুড়িগ্রাম-৪, বগুড়া-৭, গাইবান্ধা ১, গাইবান্ধা-৩, গাইবান্ধা-৪, যশোর-৫ এবং লক্ষ্মীপুর-১ আসন।

কবির