জাল ভোটের পক্ষে সুরঞ্জিতের যুক্তি !

Suronjit

Suronjitআতঙ্ক ও ভয়ভীতির মধ্যেও ৪২ শতাংশ ভোটারের অংশগ্রহণে শান্তিপূর্ণ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। তবে যেখানে আসল আছে সেখানে জাল তো কিছু থাকবেই- এমন মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মণ্ডলীর সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী সুরঞ্জিত সেন গুপ্ত।

সোমবার দুপুরে রাজধানীর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটে বঙ্গবন্ধু একাডেমি আয়োজিত ‘চলমান রাজনীতি’ বিষয়ক এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

সুরঞ্জিত বলেন, অনেক ঝড়-ঝাপটা, বাধা-বিপত্তি ও সংকটের মধ্য দিয়ে একটি অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। অথচ শান্তিপূর্ণ ও উৎসবমূখর পরিবেশে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল।  এ সময় তিনি বলেন, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, আতংক ও ভয়ভীতি গণতন্ত্রের সাথে অসামঞ্জস্যপূর্ণ।

তিনি বলেন, বিএনপির নির্বাচন বর্জনের আহ্বান প্রত্যাখ্যান করেছে জনগণ। তারা নির্বাচন প্রতিরোধও করে নি বর্জনও করেনি। মানুষ জাতে ভোট দিতে না পারে সেজন্য ১৮ দলের সন্ত্রাসীরা বিভিন্ন রকমের নাশকতা ও নৈরাজ্য সৃষ্টি করে জনমনে আতঙ্ক সৃষ্টির চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়েছে। তারপরও মানুষ জীবন বাজি রেখে ভোটকেন্দ্রে এসেছে।

বিএনপিকে আন্দোলনের ইতিহাস বিশ্লেষণের আহ্বান জানিয়ে সুরঞ্জিত বলেন, আপনাদের আত্ম-সমালোচনা ও আত্ম উপলব্ধি প্রয়োজন। তাই আন্দোলনের ইতিহাস বিশ্লেষণ করুন। জনগণ আপনাদের প্রত্যাখ্যান করেছে। তাই অসাম্প্রদায়িক চেতনা ও গণতন্ত্রের পথে ফিরে আসুন।

বিএনপির সাথে আলোচনা প্রসঙ্গে সুরঞ্জিত বলেন, মুক্তিযুদ্ধের মূল্যবোধের বিরোধীতাকারী জামাতের সঙ্গ পরিহার করলে আপনাদের সাংবিধানিক ও গণতান্ত্রিক প্রস্তাব আলোচনার জন্য বিবেচনা করা যেতে পারে। মুক্তিযুদ্ধের মূল্যবোধ রক্ষায় সংবিধান আকড়ে ধরে আমরা এগিয়ে যেতে চাই। সেজন্য অবশ্যই আইনের শাসন ও সকলের সহযোগিতা প্রয়োজন।

আয়োজক সংগঠনের উপদেষ্টা চিত্তরঞ্জন দাসের সভাপতিত্বে এ সময় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, জাসদ নেতা হুমায়ুন কবির, মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগের সভাপতি আসাদুজ্জামান দুর্জয়, সাম্যবাদী দলের হারুন চৌধুরী প্রমুখ।