শনিবার, অক্টোবর ৩১, ২০২০
Home সারাদেশ রংপুর দিনাজপুরে নির্বাচনী সহিংসতায় নিহত ৪, আহত ২০

দিনাজপুরে নির্বাচনী সহিংসতায় নিহত ৪, আহত ২০

দিনাজপুরে নির্বাচনী সহিংসতায় নিহত ৪, আহত ২০

dinajpurদশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোট গ্রহণ চলাকালে পৃথক পৃথক সংর্ঘষের ঘটনায় এক আনসার ভিডিপি সদস্যসহ পার্বতীপুরে তিন জন নিহত হয়েছে। এ সময় আহত হয়েছে আরও ২০ জন।

নিহতরা হলেন-আনসার ভিডিপির প্লাটুন কমান্ডার আব্দুল ওয়াহেদ (৩৫),পার্বতীপুর যুব জাগপার সাধারণ-সম্পাদক রায়হান মাসুদ (৩৫), বাবুল হোসেন (৪০)। সে সদর উপজেলার ১ নং চেহেলগাজী ইউনিয়নের ১ নংওয়ার্ডের বিএনপির সদস্য একবারপুর মাছুয়া পাড়া গ্রামের করিম উদ্দীনের ছেলে।

জানা যায়, বিরোধীদের হামলায় ঘটনাস্থলেই আনসার ভিডিপির প্লাটুন কমান্ডার আব্দুল ওয়াহেদ মারা যায়। এ সময় আহত হন পুলিশ সদস্য সাইদুর রহমানসহ আরও পাঁচজন। নিহত আনসার সদস্য আব্দুল ওয়াহেদ পার্বতীপুর উপজেলার মন্মথপুর ইউনিয়নের গোবিন্দপুর গ্রামের বাংরুর ছেলে।

অন্যদিকে, দুপুরে পার্বতীপুর উপজেলার মন্মথপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর গুলিতে পার্বতীপুর যুব জাগপার সাধারণ-সম্পাদক রায়হান মাসুদ (৩০) নিহত হয়েছে।

জানা যায়,নির্বাচন বিরোধীরা ভোট কেন্দ্রে হামলা করলে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সঙ্গে এই সংর্ঘষের ঘটনা ঘটে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে গুলি ছুড়লে রায়হান মাসুদসহ ৩ জন গুলিবিদ্ধ হয়। আহতদের রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে রায়হান মাসুদের মৃত্যু হয়।

রায়হান মাসুদ পার্বতীপুর উপজেলার মন্মথপুর ডাঙ্গাপাড়া গ্রামের বাসিন্দা পুলিশ কর্মকর্তা গোলাম রসুলের ছেলে বলে জানা গেছে।

পার্বতীপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নুরুজ্জামান চৌধুরী তাদের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছেন।

অপরদিকে গতকাল শনিবার রাতে সদর উপজেলার নশিপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে আগুন দিতে গেলে দুর্বৃত্তদের সাথে পুলিশের সংর্ঘষ শুরু হয়। এ সময় পুলিশ গুলি ছুড়লে একবারপুর জালিয়া পাড়া গ্রামের বাসিন্দা বিএনপির ১নং চেহেলগাজী ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ড বিএনপির সদস্য মোঃ বাবুল হোসেন (৪০) গুলিবিদ্ধ হয়। গতকাল সকাল ১১ টার দিকে সে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়।

দিনাজপুর জেলা বিএনপির সাধারণ-সম্পাদক মুকুর চৌধুরী তার মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছেন। এদিকে দুপুরে পার্বতীপুর  উপজেলার ঘোড়াখাই সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির নেতাকর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় যুবদল কর্মী চুন্নুসহ কমপক্ষে ১০জন আহত হন। এদের মধ্যে স্থানীয় ল্যাম্প হাসপাতালে নেওয়ার পথে চুন্নুর মারা যায়।