ঢাকা-৪ও ৫ আসনের ভোটকেন্দ্রে সরগরম আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও পর্যবেক্ষকরা

ঢাকা-৪ ও ৫ আসনে পুলিশ ও পর্যবেক্ষক
ঢাকা-৫ আসনে দায়িত্বরত আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ও পর্যবেক্ষক

policeআজ সকাল থেকে শুরু করে এখনও পর্যন্ত ঢাকা-৪ও ৫ আসনের ভোট কেন্দ্রগুলোতে সরগরম আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা ও পর্যবেক্ষকরা। আজ সকাল ৮টা থেকেই এসব ভোট কেন্দ্রে ভোটারের চেয়ে পর্যবেক্ষক ও সাংবাদিকের সংখ্যাই বেশি লক্ষ্য করা গেছে। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ভোটার উপস্থিতি বাড়বে প্রার্থীদের এমন আশা হতাশায় পরিণত হচ্ছে।

জানা যায়, রোববার সকাল ৮টা থেকে ভোট গ্রহণ শুরু হলেও ঢাকা-৪ ও ৫ আসনের ভোটকেন্দ্রগুলো পরিদর্শন করে দেখা গেছে, দুপুর ১টা পর্যন্ত ২০ থেকে ৩০টি ভোট পরেছে কোনো কোনো ভোটকেন্দ্রে। আবার কোথাও এখনো কোনো ভোট পড়ে নি।

কেন্দ্রগুলো ঘুরে দেখা যায়, ভোটারদের উপস্থিতি না থাকলেও সতর্ক অবস্থায় রয়েছে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা। পাশাপাশি রয়েছে সেনাবাহিনীর সদস্যরাও। তদারকিতে আছে নির্বাচন কমিশনের দায়িত্বপ্রাপ্ত নির্বাহী মেজিষ্ট্রেট। এছাড়া সংশ্লিষ্ট আসনের প্রার্থীদের এজেন্ট এবং কর্মী-সমর্থকরাও উপস্থিত রয়েছেন কেন্দ্রে শুধু অভাব ভোটারের।

ঢাকা-৫ আসনের প্রার্থীরা হলেন- আওয়ামী লীগের হাবিবুর রহমান মোল্লা, তরিকত ফেডারেশনের আরজু শাহ সায়দাবাদী, তার প্রতীক হচ্ছে মালা। এছাড়াও এ আসনে বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি থেকে প্রার্থী হয়েছেন আব্দুর রশিদ সরকার। তিনি কুঁড়েঘর প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন। জাতীয় পার্টি (জেপি) থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন মনির হোসেন কমল। তার প্রতীক বাইসাইকেল।

ঢাকা-৪ আসনে প্রার্থীরা হলেন- মহাজোটের মনোনীত জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা। তিনি লাঙ্গল প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ড. আওলাদ হোসেন। তার প্রতীক হচ্ছে হাতি। আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন না পেয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হওয়ায় দল থেকে তাকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, ঢাকা-৪: ডিসিসি দক্ষিণের ৪৭, ৫১, ৫২, ৫৩ ও ৫৪ এবং শ্যামপুর ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত ঢাকার এই আসনটি। এই আসনে লড়ছেন জাতীয় পার্টির সৈয়দ আবু হোসেন।

ঢাকা-৫: ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের ৪৮,৪৯, ৫০ নং ওয়ার্ড ও ডেমরা-শ্যামপুরসহ যাত্রাবাড়ী থানার ডেমরা-দনিয়া-মাতুয়াইল-সারুলিয়া ইউনিয়ন মিলিয়ে এ আসন।

এসএস