২০১৩ সালে গ্রাহকদের কাছে ক্ষমা চেয়েছে ১০ প্রযুক্তি কোম্পানি

sorry

sorryআলোচিত কিংবা অগোচরে অনেক ঘটনার স্বাক্ষী হয়ে বিদায় নিয়েছে ২০১৩ সাল। প্রযুক্তি বিশ্বেও ঘটেছে অনেক আলোচিত কিছু ঘটনা। এ সময় সেরাদের সেরা তালিকায় যেমন নাম লিখিয়েছে স্যোসাল নেটওয়ার্ক কোম্পানিগুলো তেমনি সেবাগত ভুলত্রুটির কারণে গ্রাহকদের কাছে সরি বলেছে তারা। গত বছরে গ্রাহকদের কাছে ক্ষমা চাওয়া এমন কয়েকটি প্রযুক্তি কোম্পানি ও তাদের পেছনের কথা জানিয়েছে ভারতের গণমাধ্যম সংস্থা দি টাইমস অব ইণ্ডিয়া।

গুগল:

২০১৩ সালের সেপ্টেম্বরে শ্লথ গতির কারণে  জিমেইল ব্যবহারকারীদের অনেকেই ভোগান্তির মুখে পড়েন। মেইল যেতে দেরি হওয়া বা ফাইল ডাউনলোডের সময়ও অনেক ক্ষেত্রে ‘এরর’ বা ত্রুটি দেখায়। আর এ কারণে ক্ষমা চাইতে হয়েছে গুগল কর্তৃপক্ষকে।

এসময় গুগল জানায়,  প্রায় ২৯ শতাংশ ইউজাররা ১১ ঘন্টারও বেশি সময় ধরে এ জটিলতায় ভুগেছেন। একসঙ্গে গুগলের দুটি নেটওয়ার্ক অচল হয়ে পড়েছিল। আর নেটওয়ার্ক সমস্যার কারণে জিমেইল ব্যবহারকারীদের মেইল পৌঁছাতে দেরি হচ্ছিল।

এভারনোট:

অনলাইন তথ্য সংরক্ষণকারী কোম্পানি এভারনোট ২০১৩ সালে হ্যাকারদল কর্তৃক তাদের নিরাপত্তা বিঘ্নিত হওয়ায় ব্যবহারকারীদের গোপনীয়তা রক্ষার্থে  তাদের ইমেইল এড্রেস, ইউজারনেম এবং এনক্রিপটেড পাসওয়ার্ড  পরিবর্তন করার আহবান জানায়। এ ঘটনায় ব্যবহারকারীদের “বিরক্ত” করার জন্য দুঃখ প্রকাশ করে তাদের প্রায় ৫০ মিলিয়ন গ্রাহকদের ‘সরি’ জানায় এভারনোট।

অ্যাপেল:

চিনের আইফোন ব্যবহারকারীদের দুর্ভোগের জন্য গত বছরে এপ্রিলে ক্ষমা চেয়েছেন অ্যাপলের প্রধান নির্বাহী টিম কুক। আইফোনের বিক্রয়োত্তর সেবা নিয়ে অসন্তুষ্ট চিনের গ্রাহকদের কাছে ক্ষমা চাওয়াসহ আইফোনের ওয়ারেন্টি নীতিমালাতেও পরিবর্তন আনার ঘোষণা দেন তিনি।

মাইক্রোসফট

২০১৩ সালের আগস্টে তিন দিন অচল থাকার পর অবশেষে চালু হয়েছিল আউটলুক ডট কম (www.outlook.com)। এ সময়ের মধ্যে গ্রাহকেরা বিনা মূল্যের এ ই-মেইলসেবা ব্যবহার করতে না পারায় ব্যবহারকারীদের কাছে ক্ষমা চাইতে হয়েছিল মাইক্রোসফটকে।

ফেসবুক:

অক্টোবরে  অনেকেই ফেসবুকে স্ট্যাটাস আপডেট, মন্তব্য করা, পোস্টে লাইক দেওয়ার মতো নানা কাজে বিপত্তির মুখে পড়েছিলেন। এতে সারা বিশ্বের ১২০ কোটি ফেসবুক ব্যবহারকারী এ সমস্যায় পড়েছিলেন। এসময় সাময়িক সমস্যা দ্রুত ঠিক করে ফেলার কথা জানিয়ে ব্যবহারকারীদের কাছে ক্ষমা চায় ফেসবুক কর্তৃপক্ষ।

ইয়াহু:

এক সপ্তাহের বেশি সময় ধরে ইয়াহু মেইল ব্যবহারকারীরা মেইল ব্যবহারের ক্ষেত্রে সমস্যায় পড়েছেন। অনেকেই ইয়াহুর মেইল সার্ভিস পুরোপুরি অচল পাচ্ছেন। ডাটা সেন্টারে জটিল এক হার্ডওয়্যার সমস্যার কারণে ইয়াহু কর্তৃপক্ষও এ সমস্যা সমাধানে হিমশিম খাচ্ছে। এ ঘটনায় ১৪ ডিসেম্বর ইয়াহুর প্রধান নির্বাহী মারিসা মেয়ার মেইল ব্যবহারকারীদের কাছে ক্ষমা চান ।

টুইটার:

২০১৩ এর জুলাইতে ব্যবহারকারীদের একাউন্ট হ্যাক হওয়ার জন্য পুনরায় ফেক একাউন্ট খোলার জন্য আহবান জানায় টুইটার। এ ঘটনায় এই স্যোসাল জায়ান্ট ব্যবহারকারীদের কাছে ক্ষমা চায়।

স্যামসাং:

ক্রেতাদের কাছে ক্ষমা চেয়েছে দক্ষিণ কোরিয়ার ইলেকট্রনিক পণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান স্যামসাং। স্মার্টফোনের চিপে ত্রুটি থাকার অভিযোগে অক্টোবরে চীনের ক্রেতাদের কাছে ক্ষমা চেয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। স্যামসাংয়ের সমালোচনা করে বলা হয়, এ স্মার্টফোননির্মাতার তৈরি বেশ কয়েকটি মডেলের হ্যান্ডসেটের মেমোরি চিপে সমস্যা রয়েছে। এ সমস্যার কারণে প্রায়ই স্যামসাং ফোন ক্রাশ করে।

ক্যাসপারস্কি:

২০১৩ সালের ফেব্রুয়ারিতে ক্যাসপারস্কি অ্যান্টিভাইরাসের আপডেট ইনস্টল করার পর ইন্টারনেট থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে হাজারো উইন্ডোজ এক্সপি অপারেটিং সিস্টেমের পিসি। এই সমস্যা এড়াতে ব্যবহারকারীদের অ্যান্টিভাইরাস সফটওয়্যারটি ডিসঅ্যাবল করে দেবার অথবা পুরনো আপডেট ব্যবহার করার পরামর্শ দেয় রাশিয়াভিত্তিক

আইটি সিকিউরিটি কোম্পানিটি। দু’ঘণ্টার মধ্যেই এই সমস্যা সমাধানে ক্যাসপারস্কি একটি আপডেট ইস্যু করলেও ইন্টারনেট সংযোগ না থাকায় আপডেটটি ইনস্টল করতে দুর্ভোগ পোহাতে হয় ব্যবহারকারীদের।

এ ঘটনায় ক্ষমা চায় ক্যাসপারস্কি। প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ‘আপনার প্রটেকশন পলিসির এভি কম্পোনেন্টটি ডিসঅ্যাবল করে দিন। এরপর রিপসিটরিস সেকশনে যেয়ে আপডেট ডাউনলোড করে প্রটেকশন আবার চালু করে দিন।

এসআর/