ভৈরবের মাছিমপুরে হামলা ও গ্রেপ্তার আতঙ্ক

Bhairab

Bhairab ভৈরবের রামশংকরপুরের মাছিমপুরে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে নিহতের ঘটনায় এখন সেখানে গ্রেপ্তার ও হামলার আতঙ্ক বিরাজ করছে। পুরো এলাকা পুরুষ শূন্য হয়ে যাচ্ছে। এর আগে দফায় দফায় হামলা, ভাংচুর, লুটপাট আর অগ্নিসংযোগের ঘটনায় শতাধিক পরিবার এখন দিশেহারা।

নিহত সজীব আহমদের ছোট ভাই মোঃ রাব্বী আহমেদ সোহাগ গতকাল শুক্রবার বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেন। তিনি ভৈরব থানায় ২১ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত ১০/১৫ জনের নামে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

সোহাগ জানান, জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে সালিশী বৈঠকে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে তার ভাইকে ঘাতকরা হত্যা করেছে। তিনি এ হত্যাকাণ্ডের সুষ্ঠু বিচার দাবি করেন।

এ বিষয়ে ভৈরব থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মুহাম্মদ সরাফত উল্লাহ জানান, মামলার এজাহারভূক্ত রাকীবকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বাকী আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

রামশংকরপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা তাসলিমা বেগম জানান, হামলা ও গ্রেপ্তারের আতঙ্কে এলাকার লোকজন অন্যত্র সরে যাওয়ায় স্কুলে শিক্ষার্থীরা আসতে পারছে না। ফলে শিক্ষার্থীদের মাঝে বই বিতরণ করা যাচ্ছে না। আর এতে করে শিক্ষার্থীদের বই বিতরণ ও পাঠদান ব্যাহত হচ্ছে।

প্রসঙ্গত: গত বুধবার দুপুরে ভৈরবের রামশংকরপুর এলাকার মাছিমপুর মহল্লার বাচ্চু মিয়া ও সাদ্দাম হোসেনের মাঝে দীর্ঘদিনের জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলছিল।এই বিরোধ  মীমাংসার জন্য এক সালিশী বৈঠক করা হয়েছিল। সেই বৈঠকে উভয় পক্ষের কথাকাটাকাটির এক পর্যায়ে প্রতিপক্ষের হামলায় সজীব আহমেদ (৩৬) নিহত হন।

কেএফ/এএস