খুলনায় কমেছে সবজির দাম

sobji

সবজি বাজারচাহিদার বিপরীতে যোগান বেড়ে যাওয়ায় খুলনায় কমেছে সবজির দাম। সপ্তাহের ব্যবধানে সব ধরণের সবজির দাম কেজি প্রতি কমেছে ৭ থেকে ৮ টাকা। কোনো কোনো ক্ষেত্রে ১০ থেকে ১৫টাকা পর্যন্ত কমেছে। তবে হরতাল-অবরোধ ও রাজনৈতিক অস্থিরতা না থাকলে সবজির দাম আরও কমে যেত বলে মনে করেন ক্রেতা ও ব্যবসায়ীরা।

শনিবার শিল্পনগরী খুলনার কয়েকটি বাজার ঘুরে জানা গেছে, বর্তমানে ফুলকপি ১৫ টাকা, টমেটো ২৫ টাকা, গাঁজর ২৫ টাকা, উচ্ছে ৫৫ টাকা, পাতাকপি ১০ টাকা, শিম ১৫ টাকা, আলু (নতুন) ১৬ টাকা, আলু (পুরাতন) ১৫ টাকা, বেগুন ২০ টাকা, শালগম ১৬ টাকা, মূলা ১২ টাকা, পটল ৩০ টাকা, খিড়ই ৩০ টাকা, মিষ্টি কুমড়া ২৪ টাকা, লাউ ১৮ টাকা, পেপে ১৬ টাকা, কাঁচকলা (হালি) ১৬ টাকা, কচুর লতি ২৫ টাকা, মটরশুটি ১০০ টাকা, কাঁচা মরিচ ৪৮ টাকা, বিট পালং ৩০ টাকা, পালং শাক ১৬ টাকা, লাল শাক ১৬ টাকা, লাউ শাক ৩০ টাকা, পেঁয়াজ (ভারতীয়) ৩৬ টাকা, পেঁয়াজ (দেশি) ৬০ টাকা, সজিনা ২৫০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হয়েছে।

এক সপ্তাহ আগে একই ফুলকপি ২৪ টাকা, টমেটো ৪০ টাকা, গাঁজর ৩০ টাকা, উচ্ছে ৭০ টাকা, পাতাকপি ২০ টাকা, শিম ২৪ টাকা, আলু (নতুন) ২২ টাকা, আলু (পুরাতন) ২০ টাকা, বেগুন ২৮ টাকা, শালগম ২৪ টাকা, মূলা ১৬ টাকা, পটল ৪০ টাকা, খিরেই ৩৬ টাকা, মিষ্টি কুমড়া ৩০ টাকা, লাউ ২৪ টাকা, পেঁপে ২০ টাকা, কাঁচকলা (হালি) ২০ টাকা, কচুর লতি ৩০ টাকা, মটরশুটি ১২০ টাকা, কাঁচা মরিচ ৬০ টাকা, বিট পালং ৪০ টাকা, পালং শাক ২৪ টাকা, লাল শাক ২৪ টাকা, লাউ শাক ৪০ টাকা, পেঁয়াজ (ভারতীয়) ৪৮ টাকা, পেঁয়াজ (দেশী) ৬০ টাকা, সজিনা ২৫০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হয়।

নগরীর তালতলা এলাকার বাসিন্দা ক্রেতা মাহবুব জানান, শীতকালীন শাক সবজির দাম কমতে শুরু করেছে। এক সপ্তাহের ব্যবধানে সবজির দাম কেজিতে প্রায় ৮ টাকা কমে গেছে। তবে তিনি মনে করেন, হরতাল অবরোধ ও রাজনৈতিক অস্থিরতা না থাকলে এসব শাকসবজির দাম আরও কমে যেত।

বড় বাজারের খুচরা ব্যবসায়ী মো. আব্দুল্লাহ জানান, খুলনার আশপাশের জেলার শাক সবজির উৎপাদন ভালো হয়েছে। হরতাল-অবরোধের মধ্যেও এসব পণ্য ভ্যান ও নসিমন-করিমনে খুলনায় আসছে। যার কারণে সপ্তাহের ব্যবধানে সবজির দাম কমেছে।