রাজস্ব আদায় ১৮৬ কোটি টাকা, যা গেল বছরের চেয়েও কম

chittsgong_corজাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)  ব্যক্তিশ্রেণীর করদাতাদের আয়কর বিবরণী দাখিলের সময় সীমা দফায় দফায় বাড়িয়েও গতবারের রাজস্ব আদায়ের তুলনায় প্রায় ৫৪ লাখ টাকা কম রাজস্ব আদায় হয়েছে।

চলতি বছরে চট্টগ্রাম বিভাগের চারটি কর অঞ্চল থেকে রাজস্ব আদায় হয়েছে প্রায় ১৮৫ কোটি ৬৫ লাখ টাকা।  আয়কর রিটার্ন দাখিল করেন ৯৪ হাজার ৪১৬ জন । যা গত বারের তুলনায় ৭১৫ জন কম। সেপ্টেম্বরের মধ্যে  আয়কর দাখিলের সময়সীমা থাকলেও ব্যবসায়ীদের দাবীর পরিপেক্ষিতে  তা তিনবার বাড়িয়ে মঙ্গলবার পর্যন্ত করা হয়।

দেশের চলমান রাজনৈতিক অস্থিরতার কারণে  এবং প্রথমবারের মতো অনলাইনে কর সনাক্তকরন নম্বর (ই-টিআইএন) নিবন্ধন ও পুন:নিবন্ধনের কারণে তিনবার সময়সীমা বাড়ানোর পরও  রিটার্ন দাখিল আশানুরুপ হয়নি বলে জানিয়েছেন  কর অঞ্চল-১ এর কমিশনার দবির উদ্দিন ।

জানা যায়, এবার  চট্টগ্রামে চারটি কর অঞ্চলে রাজস্ব আদায় হয় ১৮৫ কোটি ৬৪ লাখ ৬০ হাজার ১২৫ টাকা । যা গতবারের তুলনায় ৫৩ লাখ ৮৮ হাজার ৫৮২ টাকা কম আদায় হয়েছে ।  এদিকে এবার রিটার্ন দাখিল হয়েছে ৯৪ হাজার ৪১৬ জন । যা গত বছরের তুলনায় ৭১৫ জন কম দাখির করে।

২০১১- ২০১২ অর্থ বছরে চার অঞ্চল থেকে রাজস্ব আদায় হয় ১৮৬ কোটি ১৮ লাখ  ৪৮ হাজার ৭০৭ টাকা। এবং রিটার্ন দাখিল করেন ৯৫ হাজার ১৩১ জন। চলতি বছর কর দাতাদের জন্য প্রথমবারের মতো  ই-টিআইআর চালু করে এনবিআর । রাজনৈতিক অস্থিরতার পাশাপাশি ই-টিআইআর চালু হওয়ায়  চলতি বছর রিটার্ন দাখিল কমে গেছে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

জানা যায়, প্রতিবছর ৩০শে সেপ্টেম্বর রিটার্ন জমা দেওয়ার কথা থাকলেও  রাজনৈতিক অস্থিরতার কারণে বাড়িয়ে ৩১ শে অক্টোবর করা হয়। এর পরেও আশানুরুপ রিটার্ন দাখিল না হওয়ায় এক ডিসেম্বর এবং পরে আবারও ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত করা হয়।

অঞ্চল-১ এর কমিশনার দবির উদ্দিন বলেন, প্রতি বছর জুলাই থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত চলে আয়কর মেলা। রাজনৈতিক অস্থিরতার কারণে সময়মতো আয়কর জমা দিতে না পারায় ব্যবসায়ীদের দাবীর পরিপেক্ষিতে তা তিনবার  বাড়ানো হয়।  ব্যক্তিশ্রেণীর করদাতাদের কাছ থেকে রাজস্বের একটি বিরাট অংশ আদায় করা হয় ।

চট্টগ্রাম কর অঞ্চল-১ সূত্রে জানা যায়, এবার ব্যক্তি ও কোম্পানি পর্যায়ে আয়কর রিটার্ন জমা হয়েছে ২৩ হাজার ৫২০ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের। যার মধ্যে রাজস্ব আদায় হয়েছে ৭২ কোটি ৮২ লাখ ৬০ হাজার ১২৫ টাকা। গেল বছর ২৩ হাজার ৫১৭ টি রিটার্ন থেকে আদায় হয় ৫১ কোটি আট লাখ ২৪ হাজার ৬৬৭ টাকা।

তারা আরো জানায়, এবার ২১ হাজার রিটার্ন থেকে আদায় হয়েছে  ৫৯ কোটি টাকা। যা গেল বছর  ৩২ হাজার ৫৫৬ জন থেকে ৩২ কোটি ৭ লাখ ২০ হাজার ১৬৫ টাকা।

চট্টগ্রাম কর অঞ্চল-৩ সূত্রে জানা যায়, ২৭ হাজার ৩৯৬ জন রিটার্ন জমা থেকে এবার কর আদায় হয়েছে ২৭ কোটি ৮২ লাক টাকা। গেল বছর ২৬ হাজার ৫৭৬ টি রিটার্ন থেকে কর আদায় হয়েছিল ৫১ কোটি ১০ লাখ ২৪ হাজার ৪০ টাকা।

চট্টগ্রাম কর অঞ্চল ৪ এ রিটার্ন দাখিল করে ২২ হাজারের বেশী । যা থেকে আয়কর জমা হয় প্রায় ২৬ কোটি টাকা। গেল বছর ২৩ হাজার ৮৭ টি রিটার্ন থেকে আয়কর জমা হয়েছিল  প্রায় ২৪ কোটি টাকা।

বারবার সময় বাড়ানোর পরও যারা আয়কর জমা দিতে পারেনি তাদের জরিমান গুনতে হবে বলে জানিয়েছেন চট্টগ্রাম  কর অঞ্চল-৪  কমিশনার প্রদ্যুৎ কুমার সরকার ।

আয়কর অধ্যাদেশ অনুযায়ী টিআইএন ধারীদের আয়কর প্রদান করা বাধ্যতামূলক । যদি কেউ নির্ধারিত সময়ের মধ্যে জমা না দেয় তাহলে জেল ও জরিমানা বিধান রয়েছে। আয়কর দাখিল না করলে এককালীন এক হাজার টাকা এবং পরবর্তী প্রতিদিনের জন্য বাড়তি ৫০ টাকা জমা দিতে হবে । তবে যৌক্তিক কারণ দেখিয়ে কেউ  সংশ্লিষ্ট কর অঞ্চলের সহকারী কর কমিশনারের বরাবর আবেদন করলে জরিমানা মওকুফ করে দেওয়া হয়।

সাকি/