হিতাহিত জ্ঞান হারিয়ে ফেলেছেন খালেদা : হাসান মাহমুদ

হাছান মাহমুদ

হাছান মাহমুদআওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ও নির্বাচনকালীন সরকারের বন ও পরিবেশ মন্ত্রী ড. হাসান মাহমুদ বলেছেন, “কর্মসূচি বাস্তবায়নে চরমভাবে ব্যর্থ হয়ে খালেদা জিয়া হিতাহিত জ্ঞান হারিয়ে ফেলেছেন। তাই বছরের শুরুতেই অনির্দিষ্ট কালের অবরোধ দিয়ে দেশের মানুষকে জিম্মি করে ফেলেছেন”।

বৃহস্পতিবার দুপুরে বঙ্গবন্ধু এভিনিউ’র দলীয় কার্যালয়ে বঙ্গবন্ধু একাডেমী আয়োজিত এক প্রতিবাদী আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

হাসান মাহমুদ বলেন, “যারা ককটেল আর পেট্রোলবোমা মেরে মানুষ হত্যা করে তাদেরকে ঢাকায় সমবেত করে মাননীয় বিরোধী দলীয় নেত্রী গণতন্ত্রের অভিযাত্রার নামে সন্ত্রাসী হামলার পরিকল্পনা গ্রহন করেছিলেন। চরমভাবে ব্যর্থ হয়ে তিনি এখন হিতাহিত জ্ঞান হারিয়ে ফেলেছেন”।

তিনি বলেন, “হাইকোর্টের ভেতরে কালো কোট পড়িয়ে তিনি বিএনপি-জামাতের কতিপয় সন্ত্রাসী জঙ্গিদের সমাবেশ ঘটিয়েছিলেন। অবরোধ কর্মসূচি দিয়ে তারা এখন আত্মগোপনে গেছে। পুলিশও তার দলের সন্ত্রাসীদের খুজে পাচ্ছে না। তাদের লজ্জা থাকলে অবরোধ বাতিল করে আলোচনায় বসত।

একাদশ সংসদ নিয়ে আলোচনার প্রসংগ টেনে তিনি বলেন, “দেশে যাতে সাংবিধানিক সংকট তৈরি না হয় সেজন্য ৫ জানুয়ারির নির্বাচনের কোনো বিকল্প নেই”। নির্বাচন পরবর্তী সময়ে একাদশ সংসদ নিয়ে আলোচনার মাধ্যমে সমঝোতা হলে সংসদ ভেঙে দেয়া হবে। দয়া করে একাদশ সংসদের ট্রেনে উঠতে ব্যর্থ হবেন না”।

 

হাসান মাহমুদ ১৯৭০ সালের সাধারণ নির্বাচনে মওলানা ভাসানীর অংশগ্রহন না করার সিদ্ধান্তের সমালোচনা করে বলেন, “ওই নির্বাচনে ভাসানী ও মুসলিম লীগ অংশগ্রহন না করায় আজ তাদের অস্তিত্ব বিপন্ন। একাধিক ভাগে বিভক্ত হয়ে গেছে তারা। তেমনিভাবে বিএনপি (খালেদা), বিএনপি(ফখরুল), বিএনপি(মওদুদ) এভাবে আমরা আপনাদের দলকে  ব্রাকেট বন্দী দেখতে চাই না”।

তিনি বলেন, “খালেদা জিয়া তার আন্দোলনে জনসমর্থন আদায় করতে না পেরে জনগণের উপর আস্থা হারিয়ে বিদেশীদের দুয়ারে দুয়ারে ধরনা দিচ্ছেন। আপনাকে বিদেশে চলে যান দেশের মানুষকে মুক্তি দিন”।

আওয়ামী লীগ নেতা চিত্তরঞ্জন দাসের সভাপতিত্বে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সাম্যবাদী দলের হারুন চৌধুরী, কৃষক দলের সহ-সভাপতি এম এ করিম প্রমুখ।

এসএসআর