মুচলেকা দিয়ে কাজ করবে না শ্রমিকরা: বিজিএমইএ’র সামনে বিক্ষোভ

Garments-Sromik-Bikkhov_01.01.14--1কারখানায় কাজ করতে মালিকদের কাছে মুচলেকা দিতে হবে এমন প্রস্তাবের বিরুদ্ধে বিজিএমইএ ভবনের  সামনে বিক্ষোভ করেছে এমএসিকে শার্টস লিমিটেডের শ্রমিকরা। সে সময় তারা বর্তমান জিএম (জেনারেল ম্যানেজার) মো. সেলিমকে বহিষ্কার করাসহ মুচলেকা ছাড়াই কাজ করার দাবি জানান তারা।

বুধবার বিকেলে বিজিএমইএ’র সামনে আব্দুল্লাহপুর এলাকার এমএসিকে শার্টস লিমিটেডের কারখানার শ্রমিকরা এই বিক্ষোভ করেন।

শ্রমিকদের অভিযোগ, কারখানাটির জিএম মো. সেলিম কারখানাতে প্রবেশের পর মোবাইল ফোনে কথা বলায়  দুই নারী শ্রমিককে মারধর করেন। এছাড়া জিএম শ্রমিকদেরকে অশ্লীল ভাষায় গালাগাল করেন। তাতে জিএমকে বহিষ্কারের দাবিতে কারখানার শ্রমিকদের মাঝে অসন্তোষ সৃষ্টি হয়।

পরিস্থিতি সামাল দিতে গত ২১ ডিসেম্বর  কাজ শেষে কারখানাটি বন্ধ করে দেওয়া হয়। প্রায় ১১ দিন পরে আজ শ্রমিকদের হাতে মুচলেকা দেওয়া হয়। এছাড়া, মুচলেকায় স্বাক্ষর না করলে কাজ করতে দেওয়া হবে না বলে জানিয়ে দেওয়া হয়।

জানা যায়, আব্দুল্লাহপুর এলাকার ওই কারখানাটিতে কাজ করত ৯০০ শ্রমিক। কারখানার শ্রমিক মাকসুদা অর্থসূচককে জানান, প্রতিমাসের বেতন আমাদের আন্দোলন করে নিতে হয়। আমরা কোনো বার নির্দিষ্ট সময়ে বেতন পাই না। এখনকার জিএমের অধীনে আমারা কোনো নিরাপত্তা পাচ্ছি না। মুচলেকায় সই করিয়ে মালিকেরা তাদের জিম্মি করতে চায় বলে অভিযোগ করেন তিনি।

স্বাধীন বাংলা গার্মেন্টস শ্রমিক কর্মচারী ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক আজিজুর রহমান এ সময় শ্রমিকদের সঙ্গেGarments-Sromik-Bikkhov_01.01.14--2-1 ছিলেন। তিনি জানান, কারখানাটির মালিক বিজিএমইএ, সরকার, কারখানা পরিদর্শক ও প্রশাসনকে না জানিয়ে বহিরাগত সন্ত্রাসীদের নিয়ে হুমকির মুখে এটি বন্ধ করে দিয়েছে। এখন মুচলেকায় স্বাক্ষর করে তাদের জিম্মি করার চেষ্টা করছে দাবি করেন তিনি।

এদিকে বিজিএমইএ’র পক্ষ থেকে শ্রমিকদের বলা হয়, বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টায় মালিক ও শ্রমিকদের সঙ্গে বসে সমাধান করা হবে বলে জানানো হয়।

 

পাঠকদের সুবিধার জন্য মুচলেকাটি যুক্ত করে দেওয়া হলো।

এসইউএম/এআর