রংপুরে পুলিশ পরিচয়ে স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতার বাড়িতে ডাকাতি

rangpur

rangpurরংপুর জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম-আহবায়ক আবুল ফাত্তাহ বাবুল সরকারের বাড়িতে ডাকাতি করেছে একদল দূর্বৃত্ত। বুধবার ভোর রাতে রংপুর মহানগরীর বিনোদপুর দেওডোবা হাজীপাড়া এলাকায় এ ডাকাতির ঘটনাটি ঘটে। পুলিশ পরিচয়ে তল্লাশির নাম করে দূর্বৃত্তরা এই ডাকাতি চালায়।

এ সময় দূর্বৃত্তরা বাড়ির গৃহিনী সেলি বেগমকে কুপিয়ে গুরুত্বর জখম করে। বাড়ির অন্য সদস্যদের অস্ত্র দিয়ে জিম্মি করে নগদ ২ লক্ষ টাকা ও ৬ ভরি স্বর্ণলঙ্কারসহ প্রায় দশ লক্ষ টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় অজ্ঞাত ২০ জনকে আসামি করে কোতয়ালী থানার একটি এজাহার দায়ের করা হয়েছে।

এজাহার সূত্রে জানা গেছে, বুধবার ভোর রাত সোয়া ৪টার দিকে আবুল ফাত্তাহ্ বাবুল সরকারের বাড়িতে একদল দূর্বৃত্ত পুলিশ প্রসাশনের পরিচয় দিয়ে ঢুকে পড়ে। এ সময় তারা তল্লাশির নামে ঘরের ভিতর ঢুকে সোকেস, আলমারী, ওয়্যারড্রপ তছনছ শুরু করে। এতে বাবুল সরকার ও তার স্ত্রী সেলি বেগম বাঁধা দিলে দূর্বৃত্তরা বাঁশের লাঠি, বল্লম, রাম দা ও দেশীয় ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে জখম ও রক্তাত্ত করে তাদের। রক্তাক্ত অবস্থায় সেলি বেগমকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে তার মাথায় ১৮টি সেলাই দেওয়া হয় বলে জানা গেছে।

আবুল ফাত্তাহ্ বাবুল সরকার জানান, রাতে একদল মুখোশধারী লোক পুলিশের পরিচয় দিয়ে বাড়িতে ঢুকে তল্লাশি শুরু করে। এক পর্যায়ে তারা ঘরের সবকিছু তছনছ করে ওয়্যারড্রপ ও আলমারী থেকে ২ লক্ষ, ৬ ভরি স্বর্ণসহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ও ব্যাংকের চেক নিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে কোতয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সৈয়দ সাহাবুদ্দিন খলিফা বলেন, বুধবার পুলিশের কোনো টিম সেখানে তল্লাশি চালায় নি। তবে এজাহারের বিষয় সাপেক্ষে ঘটনাটি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

কেএফ