“সুপ্রিম কোর্টে মিছিল-মিটিং না করার বিষয়ে সমঝোতা হয়নি”

হাইকোর্ট জলকামান

হাইকোর্ট জলকামানসুপ্রিম কোর্ট চত্বরে সভা-সমাবেশ ও মিছিল-মিটিং না করার বিষয়ে কোনো ধরনের সমঝোতা হয়নি বলে জানিয়েছেন সুপ্রিম কোর্ট বারের সভাপতি অ্যাডভোকেট এ জে মোহাম্মদ আলী। বুধবার দুপুরে সুপ্রিম কোর্ট বার ভবনে এক সংবাদ সম্মেলন তিনি একথা জানান।

মঙ্গলবার প্রধান বিচারপতির সাথে আলোচনার প্রসঙ্গে অ্যাডভোকেট এ জে মোহাম্মদ আলী বলেন, প্রধান বিচারপতির সঙ্গে বৈঠক হলেও সুপ্রিম কোর্ট চত্বরে সভা-সমাবেশ ও মিছিল-মিটিং না করার বিষয়ে কোনো সমঝোতা হয়নি। সুপ্রিম কোর্টে সভা সমাবেশ অব্যাহত থাকবে বলে ঘোষণা দেন তিনি।

সংবাদ সম্মেলন শেষে বিএনপি-জামায়াতপন্থী আইনজীবীরা বার ভবন থেকে একটি ঝটিকা মিছিল বের করেন। মিছিলটি সুপ্রিম কোর্টের প্রধান ফটকের সামনে প্রদক্ষিণ করে আবারও বার ভবনে গিয়ে শেষ হয়।

পরে সেখানে এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

সমাবেশে ব্যারিস্টার মওদুদ, ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া, অ্যাডভোকেট রুহুল কবীর রিজভী, সুপ্রিম কোর্ট বারের সম্পাদক ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকনসহ আইনজীবী নেতাদের মুক্তি দাবিতে এবং বহিরাগতদের দিয়ে সুপ্রিম কোর্টে হামলার প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় থেকে আইনজীবী সমিতি ভবনের সামনে গণঅনশন কর্মসূচি পালনের ঘোষণা দেন।

আটক নেতাদের মুক্তি না দেওয়া পর্যন্ত এই কর্মসূচি চলবে বলেও সমাবেশে ঘোষণা করা হয়।

সুপ্রিম কোর্ট বারেরসহ সভাপতি অ্যাডভোকেট শাহজাদা মিয়ার সভাপতিত্বে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে বক্তব্য দেন বারের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক রফিকুল ইসলাম রাজা, অ্যাডভোকেট ওয়ালিউর রহমান খান, ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল, মোহাম্মদ আলী, মির্জা আল মাহমুদ প্রমুখ।

প্রসঙ্গত, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ঘোষিত ‘মার্চ ফর ডেমোক্রেসিকে’ কেন্দ্র করে সুপ্রিম কোর্ট চত্বরে বিএনপি সমর্থিত আইনজীবী ও সরকার সমর্থকদের মধ্যে সংঘাতের ঘটনা ঘটে।

মঙ্গলবার প্রধান বিচারপতি মোজাম্মেল হোসেনের সঙ্গে আইনজীবীদের বৈঠক হয়। বৈঠকে প্রধান বিচারপতি সুপ্রিমকোর্ট এলাকায় রাজনৈতিক কর্মসূচি পালনের জন্য মূল ফটক ব্যবহার না করার নির্দেশ দেয়।

বৈঠক শেষে জেষ্ঠ আইনজীবীরা জানান সুপ্রিমকোর্ট এলাকায় রাজনৈতিক কর্মসূচি পালন না করার বিষয়ে দুই পক্ষ মতৈক্যে পৌছেছেন।

এআর