ব্রাহ্মণবাড়িয়া ৬টি আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী চূড়ান্ত

Brahmanbaria Mononayon

Brahmanbaria Mononayonআসন্ন দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে দলীয় মনোনয়ন পেতে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ৬টি আসনের বিপরীতে আওয়ামী লীগের ৪৫ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। সর্বোচ্চ মনোনয়নপত্র জমা দেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনে ১৮জন প্রার্থী।

গত একমাস যাবত তৃর্ণমূল পর্যায়ে কৌতূহল ছিল ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ৬টি আসনে কে হচ্ছেন নৌকার মাঝি। অবশেষে সকল জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে গতকাল শুক্রবার বিকেলে সারাদেশে ৩’শ আসনের জন্য মনোনীত প্রার্থীদের তালিকা প্রকাশ করেছে আওয়ামী লীগ। তার সাথে সাথে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ৬টি আসনে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন চুড়ান্ত হয়েছে। সে তালিকা অনুযায়ী আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন পাওয়া প্রার্থীদের মধ্যে ব্রাহ্মণবাড়িয়া-১ আসনে মোহাম্মদ ছায়েদুল হক এমপি, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনে উম্মে নাজমা বেগম, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৩ আসনে র. আ. ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী এমপি, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৪ আসনে এডভোকেট আনিসুল হক, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৫ আসনে ফাইজুর রহমান বাদল, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৬ আসনে এ বি তাজুল ইসলাম এমপি। দলীয় এমপিদের মধ্যে থেকে বাদ পড়েছে কসবা-আখাউড়া আসনের সংসদ সদস্য এডভোকেট মোঃ শাহ আলম।

জেলার ৬টি আসনের মধ্যে ৩টি আসনেই এবার মনোনয়ন দেয়া হয়েছে নতুন মুখ।এদের মধ্যে ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনে সরাইল উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মরহুম ইকবাল আজাদের স্ত্রী উম্মে নাজমা বেগম ওরফে শিউলি আজাদ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৪ আসনে বিশিষ্ট আইনজীবী এডভোকেট আনিসুল হক, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৫ আসনে বিশিষ্ট ব্যবসায়ী  সাইদুর রহমান বাদল। এই ৩ জন প্রার্থীকে বিগত দিনে আওয়ামী লীগের দলীয় কোনো কর্মকান্ডে নিজ নিজ এলাকায় সক্রিয়ভাবে তেমন একটা দেখা যায় নি। এলাকায় তাদের পরিচিতিও খুব কম। এই ৩টি আসনে বড় মানের প্রার্থী থাকা সত্তেও হঠাৎ করে নতুন মুখ মনোনয়ন দেয়ায় তৃর্ণমুল পর্যায়ের নেতাকর্মীরা হতবাক হয়েছেন। বিশেষ করে আশুগঞ্জ, সরাইল, কসবা ও নবীনগর এলাকায় নেতাকর্মীদের হাতাশা, চাপা ক্ষোভ ও অসন্তোষ বিরাজ করছে। আবার সরাইল, আখাউড়া ও নবীনগর এলাকায় মনোনয়ন পাওয়া এই ৩ নতুন প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকরা মিষ্টি বিতরণ ও আনন্দ মিছিল করারও খবর পাওয়া গেছে। ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসন ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৫ আসনে মহাজোটের শরীকদলের প্রার্থীকে বিজয়ী করে আনতে এবং ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৪ আসনে দলীয় কোন্দল থাকায় নতুন মুখ মনোনয়ন দেয়া হয়েছে বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা। পাশাপাশি তারা আরও বলেন ১৮ দলীয় জোট নির্বাচনে আসলে এই তালিকায় আবারও পরিবর্তন আসতে পারে।