‘চলতি বছরও ভারতের পুঁজিবাজার চাঙ্গা থাকবে’

sensex_indexদেশের ক্রমহ্রাসমান অর্থনৈতিক বৃদ্ধি এবং বিদেশি মুদ্রায় রুপির বিনিময় দরে বিশাল পতন সত্ত্বেও বছর শেষে ভারতে শেয়ার সূচক পড়ে যায়নি। বরং সদ্য সমাপ্ত বছরে দেশটির পুঁজি বাজার সূচক সেনসেক্স প্রায় ৯ শতাংশ বেড়েছে। গত ৯ ডিসম্বের ২১ হাজার ৪৮৩ দশমিক ৭৪ পয়েন্ট ছুঁয়ে সর্বকালের রেকর্ড করেছে বম্বে শেয়ার বাজার সূচক। খবর –ওয়াল স্ট্রীট জার্নালের।

এ বছর ন্যাশনাল স্টক এক্সচেঞ্জ সূচক নিফটি উঠেছে প্রায় সাত শতাংশ। মঙ্গলবার ১৩ পয়েন্ট উঠে ৬৩ হাজার ০৪ পয়েন্টে বছর শেষ করে নিফটি।

সদ্য বিদায়ী বছর বিনিয়োগকারীদের খুব একটা হতাশ করেনি। পরিসংখ্যান বলছে, এ বছর শেয়ার বাজারে বিনিয়োগকারীদের মোট সম্পত্তি এক লাখ ২২ হাজার কোটি রুপি থেকে বেড়ে ৭০ লাখ ৪৪ হাজার কোটি রুপি হয়েছে।

শেয়ার সূচক চাঙ্গা থাকা অবস্থায় ২০১৩ সাল বিদায় নেওয়ায় নতুন বছরের শুরুটাও ভালোই যাবে বলে মনে করছেন শেয়ার বাজার বিশেষজ্ঞরা।

২০১৩ সালে বিদেশি প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের মাধ্যমে শেয়ার বাজারে বিনিয়োগের পুরোটাই এসেছে।

টাটা গ্রুপের টিসিএস সংস্থা শেয়ার বাজারকে চাঙ্গা করা জন্য সবচেয়ে বেশি অবদান রেখেছে। এই তালিকায় টিটিএসের পর আছে ইনফোসিস, উইপ্রো, টাটা মোটরস এবং মারুতি। ২০১৩ সালে টিসিএসের শেয়ার দর ৭১ শতাংশ উঠেছে। ইনফোসিসের শেয়ার দর উঠেছে ৫১ শতাংশ। ৪০ শতাংশ শেয়ার দর উঠেছে উইপ্রোর। শেয়ার দর ২০ শতাংশ বাড়তে দেখেছে টাটা মোটরস। মারুতি সুজুকির শেয়ার দর বেড়েছে ১৯ দশমিক ৩৩ শতাংশ।