প্রার্থীকে নয় গণতন্ত্রকে বিজয়ী করতে হবে: নাসিম

AL১৪ দলের মুখপাত্র ও আওয়ামী লীগের সভাপতি মন্ডলীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, প্রার্থীকে নয় বরং গণতন্ত্রকে বিজয়ী করতে হবে”।

মঙ্গলবার ধানমন্ডির দলীয় কার্যালয়ে কেন্দ্রীয় ১৪ দলের বৈঠক শেষে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

নাসিম বলেন, “শেখ হাসিনার নেতৃত্বে গত পাঁচ বছরে যেভাবে সকল নির্বাচন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হয়েছে তেমনিভাবে আগামি ৫ জানুয়ারির নির্বাচনকে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ করার জণ্য ১৪ দল কাজ করে যাবে। কোনো প্রর্থীকে নয় বরং গণতন্ত্রকে বিজয়ী করতে হবে”।

তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, “সুষ্ঠু নার্বাচনের জন্য নির্বাচন কমিশন, পুলিশ, বিজিবি, সেনা বাহিনীসহ দায়িত্বশীল সকলেই প্রয়োজনীয় ভূমিকা রাখবেন বলে আমরা বিশ্বাস করি”।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে নাসিম জানান, “১৪ দলের শরীকরা আওয়ামী লীগের ইশতেহারকে সমর্থন জানিয়েছে। তারা পৃথক কোনো ইশতেহার ঘোষণা করবেন না”।

বিরোধী দলের ‘মার্চ ফর ডেমোক্রেসি’ কর্মসূচিকে অগণতান্ত্রিক আখ্যা দিয়ে তিনি বলেন, “শুধুমাত্র সাধারণ মানুষ নয় বিএনপি দলীয় নেতাকর্মীরাও বেগম জিয়ার তথাকথিত অগণতান্ত্রিক অভিযাত্রা প্রত্যাখ্যান করেছে। আর এই অগণতান্ত্রিক কর্মসূচি প্রতিহত করার  জন্য দেশবাসী ১৪ দলের নেতা কর্মীদের অভিন্দন জানাচ্ছে”।

‘গোপালগঞ্জ থাকবেনা’ খালেদা জিয়ার এমন বক্তব্যের নিন্দা জানিয়ে নাসিম বলেন, “যে মহান নেতার জন্ম না হলে বাংলাদেশ স্বাধীন হতো না তার জন্মস্থান নিয়ে খালেদা জিয়া যে ভাষায় বক্তব্য দিয়েছেন তা নেতা তো দূরের কথা কোনো রাজনৈতিক কর্মীরও ভাষা হতে পারে না। তিনি অবশ্যই বিদেশি কোনো অপশক্তির ইন্ধনে এই কটূক্তি করেছেন”।

পিলখানা হত্যাকাণ্ড নিয়ে খালেদা জিয়া মিথ্যাচার করেছেন এমন অভিযোগ করে  সাবেক এই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, “জিয়াউর রহমান ও বেগম জিয়ার আমলে কোনো সামরিক হত্যাকাণ্ডের বিচার হয়নি। আমাদের সরকার বিডিআর বিদ্রোহের বিচার করেছে”।

মহামান্য সুপ্রিম কোর্টের মর্যাদা অক্ষুন্ন রাখতে প্রধান বিচারপতিকে সর্বোচ্চ ক্ষমতা প্রয়োগের জন্য অনুরোধ জানান ১৪ দলীয় জোটের এই নেতা।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গির কবির নানক, সাবেক খাদ্য মন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাক,  শরীফ নূরুল আম্বিয়া,  মৃনাল কান্তি দাস, ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, আ ক ম মোজাম্মেল হক, আনিছুর রহমান মল্লিক, রেজাউর রশিদ খান, শিরীন আকতার, ডা. ওয়াজেদুল ইসলাম প্রমুখ।

এসএসআর